আমরা বাঙ্গালি,বাংলা আমাদের মাতৃভাষা, বাংলা আমাদের শিল্প-সংস্কৃতি। আমাদের এই বাংলায় ছড়িয়ে আছে শিল্পের হাজারো রত্ন ভান্ডার। বাংলার পথে পথে ভেসে বেড়ায় বাউল গান, গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে আছে পালা গান, যাত্রা, সঙ। আরও আছে ভাটিয়ালি, ভওয়াইয়া,জারি-সারি গান। আমাদের আছে অজস্র নাটক,কবিতার সম্ভার। আরও রয়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমানে আমাদের দেশীয় চলচ্চিত্র, রয়েছে আমাদের দেশের গুণী শিল্পীদের আঁকা ছবি। এবং সর্বোপরি আমাদের মুক্তিযুদ্ধ। এগুলো আমাদের অহংকার। আজ একবিংশ শতাব্দিতে এসে আমরা তা হেলায় হারাতে বসেছি। বাংলা সংস্কৃতির এই আদি ও বর্তমানের বিভিন্ন দিক, পর্যায় ও শিল্প নিয়ে চর্চা এবং এগুলোকে লালন পালন করার উদ্দেশ্যে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জন্ম নিল একটি মুক্তমঞ্চ।

‘‘ শুধু প্রদর্শনের জন্য নয়, জীবনের জন্য শিল্পচর্চা ” এই কথা নিয়েই ‘আজ মুক্তমঞ্চ’ যাত্রা শুরু হলো। ‘আজ মুক্তমঞ্চ’ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল সাধারন ছাত্রছাত্রীদের একমাত্র মিলনস্থল। আমাদের সাথে আছে শাবিপ্রবি এর সকল সাধারন ছাত্রছাত্রীবৃন্দ। বাঙালি আদি সংস্কৃতিকে লালন করে আমরা অনেক পথ পাড়ি দিতে চাই। ‘আজ মুক্তমঞ্চ’ একটি পরিবর্তিত সাংস্কৃতিক মুক্তমঞ্চ। এটি সনাতন ধর্মী সাংস্কৃতিক সংগঠন থেকে ভিন্ন। এটি ক্যাম্পাসে মুক্ত চিন্তার বিকাশ ও মুক্ত শিল্পচর্চা প্রয়াসে অগ্রসর। ‘আজ মুক্তমঞ্চ’ বাঙলা সংস্কৃতির আদি ও বর্তমানের বিভিন্ন দিক, পর্যায় ও শিল্প নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক চর্চা ও অনুষ্ঠান করে আসছে। এছাড়া আজ মুক্তমঞ্চ তার নিয়মিত দেয়ালিকা ‘সায়ানাইড’, পাক্ষিক এক পাতার পত্রিকা ‘এক মুঠো সাহিত্য’ এর সাথে সাথে বার্ষিক সাহিত্য প্রকাশনা ‘আজ’ নিয়মিত প্রকাশ করছে। আমরা বিশ্বাস করি আজ মুক্তমঞ্চ শাবিপ্রবি ক্যাম্পাস থেকে শুরু করে সমগ্র বাংলাদেশে সাংস্কৃতিক বিপ্লব আনবেই। আমাদের প্রত্যাশা ‘আজ মুক্তমঞ্চ’ তার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে ক্যাম্পাসকে আলোকিত সময় উপহার দেবে।